এনআইডি ফি জমার পদ্ধতি

বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনের লোগো - Bangladesh Election Commission Logo Png,  Transparent Png - 1024x1024(#436849) - PngFindঅনলাইনে আবেদন করার প্রক্রিয়া জানলেও অনেকেই জানেন না, কিভাবে এবং কোথায় জমা দেয়া যায় এনআইডি সেবার জন্য প্রযোজ্য আবেদন ফি। ফলে অনেকেই পূর্বে প্রচলিত সোনালী ব্যাংকের মাধ্যমে ফি জমা দিয়ে পড়েন বিপাকে। এনআইডি সার্ভিসের জন্য ফি জমা দেয়া এখন অনেক সহজ। এই ফি জমা দেয়ার জন্য এখন আর প্রয়োজন নেই ব্যাংকের লম্বা লাইনে দাড়ানোর বা মোবাইলে টাকা পাঠানোর দোকানে গিয়ে ভিড় করা।

পূর্বে প্রচলিত সোনালী ব্যাংকের সোনালী সেবা পে স্লিপ বা অন্য মাধ্যমে ম্যানুয়ালী ফি জমার বিষয়টি যেমনঃ চালান, পে-স্লিপ, ব্যাংক ড্রাফট, পে-অর্ডার ইত্যাদি এখন আর এনআইডি সিস্টেম এ্যালাও করছে না। কয়েকটি অনলাইন ব্যাংকিং বা মোবাইল ব্যাংকিং সার্ভিসের সাথে নির্বাচন কমিশনের পারস্পারিক চুক্তির মাধমে এনআইডি সিস্টেমের ইন্টিগ্রেশন করা আছে। কেবল ঐসব চুক্তিবদ্ধ ব্যাংকিং সার্ভিস হতে এনআইডি ফি প্রদান করা হলে তাদের ফি-ই শুধু এনআইডি সিস্টেমে ইন্টিগ্রেশন হয়ে থাকে। যেসব অনলাইন ব্যাংক বা মোবাইল ব্যাংক এনআইডি সিস্টেমে যুক্ত রয়েছে তা নিম্নের তালিকায় দেয়া হলো-

  • ডাচ্-বাংলা ব্যাংক অনলাইন ব্যাংকিং এবং রকেট মোবাইল ব্যাংকিং
  • ওয়ান ব্যাংক অন-লাইন ব্যাংকিং এবং ওকে ওয়ালেট মোবাইল ব্যাংকিং
  • ট্রাস্ট ব্যাংক অন-লাইন ব্যাংকিং এবং টি-ক্যাশ বা ট্যাপ মোবাইল ব্যাংকিং
  • মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক লিমিটেড অন-লাইন ব্যাংকিং এবং
  • বাংলাদেশ কমার্স ব্যাংক লিমিটেড অন-লাইন ব্যাংকিং
  • Bkash (বিকাশ) মোবাইল ব্যাংকিং

এনআইডি সেবার ফি প্রদান আরো সহজীকরণ করার কাজ চলছে। যার ফলে শীঘ্রই আরো জনপ্রিয় বিভিন্ন সিস্টেমে যার মাধ্যমে যে কোন ব্যাংকের ডেবিট/ক্রেডিট কার্ড এবং অনলাইন ব্যাংকিং এর মাধ্যমে এনআইডি’র ফি প্রদান করার বিষয়টি এনআইডি সিস্টেমে যুক্ত হবে।

এনআইডি সার্ভিসের ফি জানতে ক্লিক করুন এই লিংকে

839 Replies to “এনআইডি ফি জমার পদ্ধতি”

Leave a Reply

Your email address will not be published.